অর্থের বিষয়ে সমস্যা কাটিয়ে উঠতে শুক্রবার মেনে চলুন এই নিয়মগুলি…

0
1257

বর্তমান যুগে অর্থ ছাড়া সব কিছুই অনর্থ। কোনো জায়গাতেই অর্থ ছাড়া কোনো কিছুই সম্ভব নয়। আর্থিক দিক দিয়ে অভাব থাকলে সব কিছুতেই বাধা সৃষ্টি হয়। আর প্রত্যেকটা মানুষই চায় যেন তার আর্থিক দিক দিয়ে কোনো কষ্ট না থাকে। সবাই চায় আর্থিক দিক থেকে সুখী হতে। অনেকেই আছেন যারা আর্থিক দিক থেকে স্বাবলম্বী, কিন্তু কিছু না কিছু সমস্যা লেগেই আছে।

আর্থিক দিক থেকে কিভাবে নিজেকে সমস্যা মুক্ত রাখবেন তার জন্য শাস্ত্রমতে বেশ কিছু নিয়ম মেনে চলা উচিত। আর্থিক সমস্যা সমাধানে অনেক জ্যোতিষী রত্ন ধারনের পরামর্শ দিয়ে থাকেন, কিন্তু সবার পক্ষে রত্ন ধারন সম্ভব হয়ে ওঠে না।

এই সমস্ত কিছু ছাড়া অনেক প্রতিকার আছে যার মাধ্যমে এই রকম সমস্যা থেকে মুক্তি পাওয়া যায়। জ্যোতিষ মতে একাদশীয় দিনগুলিতে অর্থের সমস্যা কাটিয়ে উঠতে শুক্রবার মেনে চলা উচিত বেশ কিছু নিয়ম। বেশ কিছু নিয়ম আছে যা শুক্রবার মেনে চললে সহজেই সমস্যা থেকে মুক্তি পাওয়া যাবে।

এর ফলে আর্থিক সমস্যা সহজেই কাটিয়ে ওঠা যাবে। এদিন অর্থাৎ শুক্রবার ভগবান বিষ্ণুর মন্দিরে গিয়ে ঈশ্বরকে হলুদ রঙের পোশাক উৎসর্গ করুন। মহালক্ষীর পুজো করুন এই দিনে। ‘জগদ্ধে বসুদেবায়া’ এই মন্ত্র ১০৮ বার জপ করুন। সহজেই আর্থিক সমস্যা কাটিয়ে উঠতে পারবেন।

শুক্রবার একাদশী পড়লে সেই দিন সূর্যোদয়ের আগে ঘুম থেকে উঠুন। ভালো করে স্নান করে পরিষ্কার কাপড় পরে ভগবান বিষ্ণুর সামনে ঘিয়ের প্রদীপ জ্বালান। সেই প্রদীপ দেখিয়ে ভগবান বিষ্ণুকে পুজো করুন। পুজো করার সময় বিষ্ণুর সহস্রনাম জপ করুন। এইভাবেও কাটিয়ে উঠতে পারবেন আর্থিক সমস্যা।

একসাথে দুধ ও গঙ্গাজল মিশিয়ে তা দিয়ে মহালক্ষীর অভিষেক করুন। দুধ ও গঙ্গাজলের সাথে জাফরান মেশাতে পারেন। জাফরান না থাকলে হলুদ দিতে পারেন। এর ফলে আর্থিক সমস্যা থেকে মুক্তি মিলবে, পাশাপাশি সম্পদ লাভও হতে পারে।

শুক্রবার একাদশী তিথি থাকলে কলাগাছের নিচে প্রদীপ জ্বালান। ঈশ্বরের উপাসনা করুন। লাড্ডু, ছোলা ও ময়দা দিয়ে মিষ্টি তৈরি করে সেটা অর্পণ করুন।