জিমে কসরত করতে গিয়ে হাত ফোস্কে মাটিতে পড়ল আমিরের কন্যা, ভাইরাল হলো ভিডিও…

0
2143

আমির খান বলিউডের একজন অন্যতম সুপারস্টার। আমির খান যে সিনেমাই করুক না কেনো সেটা সুপার ডুপার হিট হয়ে যায়। বর্তমানে বেশিরভাগ সেলেবদের সন্তানরা বাবা-মায়ের পথই অনুসরণ করেন। কিন্তু আমির খানের কন্যা ইরা খান ব্যাতিক্রমী। সিনেমাতে অভিনয় করতে খুব একটা পছন্দ করেন না ইরা খান। যদিও তিনি পরিচালক হিসেবে কাজ শুরু করেছেন।

ইরা খানের জন্ম মুম্বাইতে ১৯৯৬ সালের ১০ই মে। ছোট থেকেই মুম্বাইতে বেড়ে উঠেছেন আমির কন্যা। অন্যান্য বলিউড সেলেবদের সন্তানদের থেকে ইরা খান একটু অন্যরকম। শুরুতেই বাজিমাত করে দিয়েছেন ইরা। ইরা খানকে শুধু একজন স্টার কিড নয়, সুপার স্টার কিডও বলা যেতে পারে।

প্রথমেই পরিচালক হিসেবে দেখা যাবে আমির কন্যাকে। যদিও এর আগে ফটোশুট করেছেন আমির কন্যা। সেখানেও সাহসীকতার পরিচয় দিয়েছিলেন তিনি। জংলা ছাপের ঘন পোশাক, সঙ্গে ভারী গয়না, কপালে বড় বিন্দি, প্রশ্ন ‘হু আর ইউ’।

বারবারই তিনি খবরের শিরোনামে থাকতে চেয়েছেন, আর সেই কারনে তিনি সোস্যাল মিডিয়ায় সবসময় এক্টিভ। এবারও এমন একটা কান্ড তিনি ঘটিয়েছেন, যেটা নিয়ে সোস্যাল মিডিয়ায় শোরগোল পড়ে গেছে এবং সেই ভিডিওটি প্রচুর পরিমানে ভাইরালও হয়েছে।

ঘটনাটি ঘটেছে শরীরচর্চাকে কেন্দ্র করে। এখন প্রত্যেক সেলিব্রেটিরা কম বেশি শরীরচর্চা করে নিজেদের ফিট রাখেন, প্রত্যেকেই বেশ পরিশ্রম করেন। আর এটা খুবই জরুরী, কারন শরীরচর্চা শুধু ফিট রাখে না, শারীরিকভাবে সুস্থ রাখে আর রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়িয়ে তোলে।

যুগের সাথে তাল মিলিয়ে চলতে গিয়ে প্রত্যেক সেলিব্রেটিদের এখন জিমে গিয়ে শারীরিকভাবে কসরত করতে হচ্ছে। সবার মতো আমির খানের কন্যা ইরা খানও জিমে যাচ্ছেন, নিয়মিত শরীরচর্চাও করছেন। কিন্তু অনুশীলন করতে গিয়ে হটাৎ হাত ফোস্কে পরে যান ইরা।

আর সেই ভিডিওটি খুব তাড়াতাড়ি ভাইরাল হয়ে যায় সোস্যাল মিডিয়ায়। ভিডিওটিতে দেখা গেছে তার ট্রেনার তাকে নির্দেশ দিচ্ছেন আর নির্দেশকের হাতে একটি লাঠি, যেটি তিনি টাচ না করে একই রকম ভাবে একটি পোল ধরে ঝুলে ছিলেন। হটাৎই তিনি হাত ফোস্কে নিচে পরে যান।

যদিও তিনি কোনো চোট পাননি কিন্তু ভিডিওটি নিয়ে সোস্যাল মিডিয়ায় খুব চর্চা হয়েছে। খুব তাড়াতাড়ি তাকে একটি নাটকে উল্লেখযোগ্য ভুমিকায় দেখা যাবে যেটা তিনি নিজেই পরিচালনা করেছেন। সম্প্রতি সে তার বয়ফ্রেন্ড মিশাল ক্রিপালিনির সাথে তার খোলাখুলি সম্পর্কের কথা স্বীকার করেছেন।