আগামী ৪৮ ঘণ্টায় রাজ্যের বিভিন্ন অঞ্চলে হতে চলেছে প্রবল ঝড় বৃষ্টি…

0
21025

গ্রীষ্মকাল প্রবল দাবদাহের কাল। এই সময় মানুষের অবস্থা শোচনীয় হয়ে ওঠে। শুধু মানুষ নয় প্রায় সমস্ত প্রাণীকুল গরমের জ্বালায় অতিস্ট হয়ে ওঠে, চায় একটু শান্তি, তাই গরম থেকে রেহাই পেতে বৃষ্টির অপেক্ষা করে। প্রকৃতিরও কি অপরুপ লীলা খেলা, গরমে যখন মানুষ মৃত প্রায়, সমস্ত প্রাণীকুল যখন জলের জন্য অতিস্ট, সেই সময়তেই আগমন হয় বৃষ্টির। তার আগে হয় কালবৈশাখী।

গরম থেকে রেহাই পেতে আমরা জতই বাতানুকুল যন্ত্র, ফ্রিজ ব্যাবহার করিনা কেন বৃষ্টির মহিমাই আলাদা। হয়তো প্রাকৃতিক সম্পদ তাই হয়তো। তো যাইহোক গতকাল আলিপুর আবহাওয়া দপ্তর জানিয়েছে যে আগামী ৪৮ ঘণ্টার মধ্যে রাজ্যের বিভিন্ন জায়গায় বৃষ্টিপাত হবে। যার ফলে স্বস্তি মিলবে কিছুটা।

আলিপুর আবহাওয়া দপ্তর জানিয়েছে যে সন্ধ্যের দিকে কলকাতার পাশাপাশি দুই ২৪ পরগনা, নদীয়া, বাঁকুড়া, বিরভুম, মুরশিদাবাদে ধেয়ে আসছে বৃষ্টি।

আজ কলকাতায় তাপমাত্রা ছিল ৩৭.৫ ডিগ্রী যেটা সকাল ১১ টার পর আরও বেড়ে যায় আর আপেক্ষিক আদ্রতা ৬৬%। ৪১.৮ ডিগ্রী তাপমাত্রা আসানসোলের। পিছিয়ে নেই হুগলীও, হুগলীর তাপমাত্রা ৩৮.৩ ডিগ্রী সেন্ত্রিগ্রেড, বাঁকুড়ায় ৪০.০ ডিগ্রী আর বহরমপুরে ৩৯.৪ ডিগ্রী সেন্ট্রিগ্রেড, পুরুলিয়াতে ৪১.৩।

অন্যদিকে বর্ধমানে আজ তাপমাত্রা সবচেয়ে বেশি ৪১.৯ ডিগ্রী, মালদহে তাপমাত্রা ৪০.৩ ডিগ্রী, ক্যানিয়ে ৩৮ ডিগ্রী দমদমে ৩৮.৮ ডিগ্রী সেন্ত্রিগ্রেড। মেদিনীপুরে ৩৯.৬ আর পানাগরে ৩৯.৮ ডিগ্রী।

কিন্তু এর মধ্যেই স্বস্তির বার্তা এনেছে আবহাওয়া দপ্তর, আগামী ৪৮ ঘন্টায় দেশের বিভিন্ন প্রান্তে বৃষ্টির সম্ভাবনা দিয়েছে আবহাওয়া দপ্তর বা মউসম ভবন। ঘণ্টায় ৫০ কিমি বেগে ঝরো হাওয়ার সতর্ক বার্তা জারি করেছে আবহাওয়া দপ্তর।

ভারি থেকে অতি ভারি বৃষ্টিপাতের সম্ভবনা রয়েছে আন্দামান নিকবোর দ্বীপপুঞ্জ, অসম, মেঘালয়ের বিস্তৃন এলাকায়। কাশ্মীর, হিমাচল প্রদেশ, উত্তরাখণ্ড, সিকিমে বইবে দমকা হাওয়া।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here