এইগুলি জানার পর আপনি কোল্ড ড্রিংকস খাবার আগে ১০ বার ভাববেন…

0
15261

কোল্ড ড্রিংকস আমাদের খুব পছন্দের একটি পানিও। ঠাণ্ডা কোল্ড ড্রিংকস প্রায় ৪০ বছর ধরে আমাদের দেশে নিজেদের বাজার চালিয়ে যাচ্ছে। গরমে বা কোন মশলাদার খাবার খাওয়ার পর গ্যাস অম্বলের জ্বালা থেকে বাঁচতে আমরা এগুলো পান করে থাকি। তাছাড়া তৃষ্ণা মেটানোর জন্যে তো রয়েছেই এটি। আজকালকার যুগে কোন পার্টী বা অনুষ্ঠানে কোল্ড ড্রিংকস তো অবশ্যই থাকে।

কিন্তু এই সুস্বাদু কোল্ড ড্রিংকস আমাদের সবার জন্যেই ক্ষতিকারক। হ্যাঁ ঠিকই শুনছেন, এই কোল্ড ড্রিংকস আমাদের শরীরের পক্ষে ভালো নয়। কোল্ড ড্রিংকসে থাকা কার্বোনেটেড ওয়াটার, ফসফরিক অ্যাসিড, মিস্টি, অতিরিক্ত রং সব কিছুই শরীরের পক্ষে ক্ষতিকর।

আগে শুধু কালো রঙের কোল্ড ড্রিংকস ছিল, এখন নিল, হলুদ, এমনকি জলের মত স্বচ্ছ কোল্ড ড্রিংকসও আছে। তাই মানুষের মনের পছন্দ অনুযায়ী এগুলির বিক্রিও বারছে চরম হারে। এই কোল্ড ড্রিংকস পান করার পর তা আমাদের শরিরর বিভিন্ন অংশে পৌঁছে তার প্রতিক্রিয়া শুরু করে।

আগেই বলেছি কোল্ড ড্রিংকসে থাকা ফস্ফরিক অ্যাসিড আমাদের শরীরের জন্যে ক্ষতিকর। এই ফস্ফরিক অ্যাসিড আমাদের শরীরে থাকা ক্যালসিয়াম এবং দাঁতের এনামেলকেও ক্ষয় করে। তাই ডাক্তাররা বলেন বেশি কোল্ড ড্রিংকস খেলে দাঁত দুর্বল হয়ে যায়।

মিষ্টির মূল উপাদান যা এখানে ব্যাবহার হয় তা হল চিনি। প্রায় তিনশ গ্রাম কোল্ড ড্রিংকসে তিরিশ গ্রাম চিনি থাকে। এই চিনি ব্লাড সুগারের মাত্রা তো বাড়ায়ই তাছাড়া গ্লুকোজের মাত্রাও বাড়িয়ে দেয়।

তাছাড়াও এই কোল্ড ড্রিংকস গুলি ফ্যাটের উৎস, ফলে যাদের মোটা হওয়ার ধাত আছে তারা আরও মোটা হয়ে যান। এর মধ্যে থাকে ক্যাফেইন। এই ক্যাফেইন অতিরিক্ত সেবন করলে চখের মনি বড় হয়ে যায়।

এছাড়াও ফস্ফরিক অ্যাসিড রক্তে অবস্থিত জিঙ্ক, সোডিয়াম, পটাশিয়াম ইত্যাদির মাত্রারও তারতম্য ঘটায়।  হার্টের সমস্যাও দেখা দিতে পারে অতিরিক্ত এটি পান করার ফলে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here