বাড়িতে গণেশ মূর্তি আছে? তাহলে অবশ্যই এই আটটি বিষয় মাথায় রাখুন…

0
4207

সকলের বাড়িতেই ঠাকুর ঘরে একটি গণেশের মূর্তি থাকে। তাকে সিদ্ধিদাতা বলা হয়। তিনি হলেন সুখ সমৃদ্ধির দেবতা। আমাদের দেশে অনেক জায়গায় ধুমধাম করে গণেশ পুজো হয়। সাধারণত ব্যবসা বাণিজ্যের ক্ষেত্রে বিশেষভাবে গণেশ পুজো করা হয়। তবে বাড়িতে গণেশ মূর্তি রাখতে গেলে কিছু নিয়ম অবশ্যই মেনে চলতে হয়। নাহলে বিপদ হতে পারে পরিবারের।

১। ‘ধর্ম সিন্ধু’র মতই অনেক বইতে উল্লেখ আছে যে একজন ব্যাক্তির কাছে একের অধিক গণেশ মূর্তি রাখা ঠিক নয়। এতে সেই ব্যাক্তির অমঙ্গল হতে পারে।

২। গণেশ মূর্তি সব সময় একটা নির্দিষ্ট মাপে রাখা উচিৎ। গণেশের মূর্তি কখনও সাত ইঞ্চির বেশি হওয়া উচিৎ নয়। ছোট মূর্তি বাড়িতে রাখাই ভালো।

৩। এমন কোন গণেশের মূর্তি বাড়িতে রাখা উচিৎ নয় যার রং উঠে গেছে বা কোন অংশ ভেঙ্গে গেছে। তাহলে আপনার উপর এবং আপনার পরিবারের উপর খুব খারাপ প্রভাব পড়তে পারে। যদি সেরকম হয়ে থাকে তাহলে ভগবানের কাছে ক্ষমাপ্রার্থী হয়ে জলে মূর্তি ভাসিয়ে দেওয়াই ভালো।

৪। নতুন মূর্তির থেকে পুরনো মূর্তি বেশি যত্নে রাখতে হয়। পুরনো মূর্তি ভালো রাখা বেশি জরুরি। মূর্তি খারাপ হয়ে গেলে তার যত্ন করা জরুরি।

৫। মাটি বা প্লাস্টার প্যারিসের মূর্তি বাড়িতে না রাখাই ভালো। কারণ এই মূর্তি খুব অল্প দিনের মধ্যেই খারাপ হয়ে যায়। তাই মাটির মূর্তি না রেখে কোন ধাতুর মূর্তি রাখাই ভালো।

৬। এখন বাজারে অনেক ধরনের মূর্তি পাওয়া যায় যা দেখতে বিকৃত। শিল্পের নাম করে ভগবানকে নিয়েও নানা রকম বিকৃত মূর্তি বানানো হয়। সেই সব মূর্তি বাড়িতে না রাখাই ভালো।

৭। যদি গণেশের ঠিকমতো পুজো করতে পারেন, তার যত্ন নিতে পারেন তবেই গণেশের মূর্তি ঘরে রাখুন। শো-পিস হিসাবে গণেশকে ঘরে রাখবেন না।

৮। শোবার ঘরে অনেকেই ঠাকুর রাখেন, কিন্তু সেটা করলে ভগবানকে অপমান করা হয়। তাই শোবার ঘরে, খাবার ঘরে বা রান্না ঘরে গণেশের মূর্তি রাখা উচিৎ নয়। এর ফলে মূর্তির পবিত্রতা নষ্ট হয়ে যায়।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here