সালমান খানের ১০ টি বিতর্কিত ঘটনা যা জানলে আপনি চমকে উঠবেন…

0
8754

বলিউডের সবচেয়ে বড় একজন তারকা সালমান খান। তার বিতর্কিত বিবৃতি বা তার সহ-অভিনেত্রীদের সঙ্গে সম্পর্কের জন্য সবসময় তিনি সংবাদে থাকেন। তবে তিনি যতই বিতর্কের মধ্যে দিয়ে যান না কেন, তা সত্ত্বেও তিনি এখনও বলিউডের শীর্ষ অভিনেতাদের মধ্যে রয়েছেন। সত্যি বলতে তিনি ভারতের সবচেয়ে শক্তিশালী তারকাদের মধ্যে একজন।

সালমান খান আজ পর্যন্ত বহু বিতর্কে ফেঁসেছেন, তার মধ্যে কয়েকটি এতোটাই গম্ভির যে তার হাজতবাস পর্যন্ত হয়েছিল। আজ আমরা সে সম্পর্কে আপনাদের বলতে চলেছি। আসুন তাহলে জেনে নেওয়া যাক।

১। ব্ল্যাকবাক চোরাশিকার মামলা – অভিনেতা সালমান খান, সাইফ আলী খান, সোনালী বেন্ড্রে, টাবু ও নীলামকে ‘হাম সাথ সাথ হে’ ছবির শুটিং চলাকালীন দুটি কালো হরিণ শিকার করার মামলায় অভিযুক্ত করা হয়।

২। বলিউডের সবচেয়ে বড় বিতর্ক ঐশ্বরিয়া এবং সালমান খানের প্রেম কাহিনী – বলা হয় যে তাদের ব্রেকআপের পর সালমান ফোনে ঐশ্বরিয়া রাইকে হুমকি দিতেন। এমনকি তার বাড়ির দরজায় বেশ কয়েকবার লাথি মেরেছেন।

৩। সালমান খানের কর্মজীবনের সবচেয়ে গুরুতর বিতর্ক ‘হিট-অ্যান্ড-রান’ কেস – তিনি মুম্বাইয়ের বানদ্রায় গাড়ি নিয়ে একটি দোকানে ধাক্কা মেরেছিলেন। যেখানে ফুটপাতে ঘুমন্ত এক ব্যক্তি মারা গিয়েছিল এবং তিনজন আহত হয়েছিল।

৪। ‘ক্যায় আপ পাঁচভি পাস সে তেজ হও?’ বনাম ‘বিগ বস’ শাহরুখ বনাম সালমান খান – যে খানরা একসময় ভালো বন্ধু ছিল, তারাই ক্যাটরিনা কাইফের জন্মদিনে একে অপরের টেলিভিশন শো নিয়ে বিশাল ঝগড়ায় জড়িয়ে পড়েন।

৫। হৃতিকের মুক্তি, ‘গুজারিশ’ – সালমান খান এই সিনেমার উপর যা মন্তব্য করেছিলেন সেটা সম্পর্কে আপনি ভাবতেও পারবেন না। একটি মিডিয়া সাক্ষাৎকারে যখন তাকে হৃতিকের সাম্প্রতিক মুক্তি ‘গুজারিশ’ সম্পর্কে জিজ্ঞাসা করা হয়েছিল, তখন সালমান মন্তব্য করেছিলেন যে, ‘একটা কুকুরও দেখতে যাইনি সিনেমা টা‘।

৬। প্রথম আত্মপ্রকাশের সিনেমার উপর সুভাষ ঘাই এর কুৎসিত মন্তব্যের কারণে সালমান ক্রুদ্ধ হয়েছিলেন – ‘মেইনে পেয়ার কিয়া’ যা তাদের উভয়ের একটি মুষ্টি যুদ্ধে পরিণত হয়েছিল।

৭। ক্যাটরিনা কাইফের গায়ে হাত তোলার জন্য সালমান খান অভিযুক্ত হয়েছিলেন – ‘এক দা টাইগার’ শুটিং এর সময় সালমান খান ক্যাটরিনা কাইফকে মেরেছিলেন, কারন তিনি অত্যাধিক ছোট পোষাক পড়েছিলেন।

৮। বিবেক ওবেরয়কে অপমান – সালমান খান বিবেককে অপমান করেছিলেন এবং তাকে হত্যা করার হুমকিও দিয়েছিলেন, কারণ তিনি ঐশ্বরিয়া রাইয়ের সঙ্গে সম্পর্কযুক্ত ছিলেন।

৯। প্রিয়াঙ্কা তার হোম প্রোডাকশন সিনেমায় অভিনয় করতে প্রত্যাখ্যান করায় সালমানের ক্ষোভ – ঠিক সেই কারণেই তিনি প্রিয়াঙ্কা এবং হৃতিকের ছবি ‘আগনিপথ’কে তার শো বিগ বসে প্রচার না করার সিদ্ধান্ত নেন।

১০। সালমান খান এবং নরেন্দ্র মোদী – সালমান খান তার ছবি ‘জয় হো’ প্রচারের জন্য গুজরাটে গিয়েছিলেন, যা রাজনৈতিক পটভূমিতে ছিল এবং সেখানেই তিনি প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর সাথে সাক্ষাত করেন। মিডিয়ার ধারণা ছিল যে তিনি সেখানে মোদির সমর্থনে গিয়েছিলেন যাতে সালমান খান উত্তর দিয়েছিলেন, “আমি নরেন্দ্র মোদীর সমর্থনে নয়, মকর সংক্রন্তিতে আমার ছবি ‘জয় হো’ প্রচারের জন্য গুজরাট গিয়েছিলাম।