ছোট্ট ছুটিতে ঘুরে আসুন এই অফবিট জায়গা থেকে…

0
1365

ঘুরতে কে না ভালোবাসে। সুযোগ পেলে সবাই বেড়িয়ে পরে আশেপাশে। কেউ পাহাড় পছন্দ করে আবার কেউ সমুদ্র পছন্দ করে। কেউ কেউ আবার বন জঙ্গল ভালোবাসে। কম বেশি সবাই ভ্রমন পিপাসু হয়ে থাকে, কিন্তু কাজের চাপই বাধ সাথে লম্বা ছুটি নিয়ে কোথাও ঘুরে আসতে। তাতে কি, ছোট্ট উইকেন্ডই যথেষ্ট ঘুরে আসার জন্য।

এখনকার দিনে কেউই লম্বা ছুটি নিতে পারে না, আর সেই কারনে ছোট ছোট অফবিট জায়গা গুলোকে সবাই কাছের করে নিয়েছে। আপনি ২ থেকে ৩ দিন ঘোরার জন্য এই সব জায়গা গুলোকে বেছে নিতেই পারেন। উত্তরবঙ্গের এমন কিছু জায়গা রয়েছে যেখানে ২-৩ দিনের রাত্রিবাস আপনার একঘেয়েমি কাটিয়ে দিতে পারে।

যেমন লেপচাজগত। শহরের চেনা কংক্রিটের ঘেরাটোপ থেকে দূরে জঙ্গলে মোড়া আলাদা জগত লেপচাজগত। দার্জিলিঙের থেকে ১৯ কিলোমিটার দূরে অবস্থিত এই জগতটি। মুলত লেপচা উপজাতির বাস এখানে। এর বেশিরভাগ অংশ জুড়ে রয়েছে রিজার্ভ ফরেস্ট, যার কারনে প্রকৃতিপ্রেমীদের কাছে খুব প্রিয় জায়গা এটি।

দওয়াই পানি বলে একটি জায়গা যা দার্জিলিং থেকে ১৫ কিলোমিটার দূরে অবস্থিত। এটি মুলত হিমালয়ের গাঁ ঘেসে গরে ওঠা একটি গ্রাম। মাঞ্চি শৃঙ্গকে দেখার ইচ্ছে হলে এখানে কিছুদিন কাটিয়ে দেওয়াই যেতে পারে। এছাড়াও কাঞ্চনজঙ্ঘাকে খুব সুন্দর ভাবে দেখা যায় এখান থেকে।

তেমনই রামাধুরা নামে একটি গ্রাম রয়েছে যা সিকিম ও পশ্চিমবঙ্গের মাঝে অবস্থিত। এই গ্রামের পাশ দিয়ে তিস্তা নদী বয়ে গেছে। গোটা গ্রাম জুড়ে পাহাড়ি ফুলের চাষ হয়। প্রাকৃতিক শোভা দেখার জন্য এই জায়গায় ভ্রমন করতেই হবে।

কালিংপং থেকে ১০ কিলোমিটার দূরে অবস্থিত দাঁরাগ্রাম। মন মাতানো অর্কিড দেখতে হলে আপনাকে এখানে আসতেই হবে। এই গ্রামের বাড়ির ছাদে ছাদে অর্কিডের চাষ দেখা যায়। এছাড়া এই শীতে আপনি ঘুরে আসতেই পারেন হিমাচল প্রদেশের কুল্লু জেলার ‘কাশল’ নামের একটি গ্রামে। এর পাশ দিয়ে বয়ে গেছে পার্বতী নদী।

নৈসর্গিক শোভা দেখার জন্য পর্যটকরা এখানে বারবার ভিড় জমায়। কাশলে গেলে আপনার মন চনমনে হয়ে উঠবে। নির্জন ও কোলাহল মুক্ত এখানকার পরিবেশ। পাশেই রয়েছে তস গ্রাম, সেখান থেকে চাইলেই ঘুরে আসা যায়। যারা অফবিট ভ্রমন ভালোবাসেন তাদের জন্য এই জায়গাগুলো বেশ সুন্দর।