প্রতিদিন গরম জলে স্নান করছেন, জেনে নিন ঠিক করছেন না ভুল…

0
5353

শীতকালে স্নান করার কথা উঠলে আমরা সবাই একটু ভয় পাই। তার মধ্যে যদি শীতের সকালে স্নান করতে হয় তাহলে তো আরোই বড় সমস্যা। কিন্তু শীতকালে অবশ্যই স্নান করা উচিত। কারন সারাদিন গরম জামা কাপড় পরে থাকা হয়, তার মধ্যে যদি স্নান না করা হয় তাহলে শারীরিক সমস্যা দেখা দিতে পারে।

শীতের সকালে স্নান করার কথা মাথায় এলেই ঠান্ডাটা যেন জাকিয়ে বসে শরীরে। এই সময় স্নান করার কথা এলেই প্রথমেই যেটা মাথায় আসে তা হল গরম জলে স্নান করা। কিন্তু গরম জলে স্নান করা শরীরের পক্ষে কতটা ভালো বা খারাপ তা আমরা ভেবেও দেখি না।

কিছু না জেনেই গরম জলে স্নান করা ছাড়া এক মুহূর্ত ভাবতেও পারিনা। গরম জল শরীরের পক্ষে অনেকটা ক্ষতিকর। একটানা গরম জলে স্নান করলে ছেলেদের ফার্টিলিটি কমে যায়। ছেলেরা নিয়মিত গরম জলে স্নান করলে সন্তান হওয়ার ক্ষেত্রে সমস্যা সৃষ্টি হয়।

তাই ছেলেদের উচিত সবসময় ঠান্ডা জলে স্নান করা। সমীক্ষায় দেখা গেছে প্রচন্ড ঠান্ডায় গরম জলে স্নান করলে হার্টের সমস্যা দেখা যায়। এমনকি গরম জলে স্নান করার জন্য হার্ট অ্যাটাকের সম্ভবনাও বেড়ে যায়। যাদের হার্টের সমস্যা আছে তারা কখনই গরম জলে স্নান করবেন না।

গরম জলে স্নান করলে ত্বকের আদ্রতা কমে যায়। ফলে ত্বক রুক্ষ হয়ে যায়, ত্বকের সৌন্দর্জ নষ্ট হয়ে যায়। তাই প্রয়োজন না পড়লে গরম জলে স্নান করবেন না। ঠান্ডা জলে স্নান করলে শরীরের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়ে। কোনো রকম সংক্রমণে আক্রান্ত হওয়ার সম্ভবনা কমে যায়।

গরম জলে স্নান করলে রক্তচাপে পরিবর্তন দেখা যায়। ফলে হার্টের রোগীদের ক্ষেত্রে সমস্যা দেখা যায়। বড় কিছু দুর্ঘটনা ঘটার সম্ভবনা থাকে যদি হার্টের রোগীরা গরম জলে স্নান করে থাকে। গরম জলে স্নান করলে মাথা ঘোরা বা শরীর দুর্বল এই ধরনের সমস্যা দেখা যায়।

শরীরের রক্তচাপ বেড়ে যায়, রক্তচাপের হেরফের হয়, তাই গরম জলে স্নান এড়িয়ে যাওয়া উচিত। খাওয়ার পরে ভুল করেও গরম জলে স্নান করা উচিত নয়, এতে শরীরের ক্ষতির আশঙ্কা বেড়ে যায়। একটু কষ্ট হলেও ঠান্ডা জলেই স্নান করা উচিত।