বাড়িতে মা লক্ষ্মীর পূজায় কখনো ভুলেও করবেন না এই কাজ, সংসার ডুবে যাবে…

0
3095

মানুষ মা লক্ষ্মীর পুজো করেন আর্থিক অবস্থার উন্নতি ঘটানোর জন্য। বেশীরভাগ ক্ষেত্রেই মানুষের আর্থিক অবস্থান ভালো না থাকায় তারা লক্ষ্মী পুজোয় মন দেন। কারণ তারা মনে করেন এর ফলে তাদের ধনলাভ হবে এবং মা লক্ষ্মী তাদের সমস্ত সমস্যা দূর করে তাদের এক সুন্দর ও সুস্থ ভবিষ্যতের দিকে নিয়ে যাবেন। কিন্তু এই চক্করে অনেকেই ভুলে যান যে পুজো আসলে মনের গভীর থেকে না উঠে এলে সেই পুজোর কোন গুরুত্ব নেই।

তার ফলে তারা যেকোন উপায়ে লক্ষ্মীর পুজো করেন এবং ভাবেন সেই পদ্ধতিতে পুজো করলেই লক্ষ্মী খুশি হয়ে যাবেন এবং তাদের সমৃদ্ধি অবশ্যই আসবে। কিন্তু বাস্তব ক্ষেত্রে সেসব হয় না। লক্ষ্মী তাদের উপর প্রসন্ন না হয়ে উল্টে তাদের প্রতি বিরুপ হয়ে যান এবং কখনোই তাদের জীবনে সমৃদ্ধি আসে না, উল্টে তাদের জীবন দুর্বিষহ হয়ে ওঠে এবং অনেক সময়েই লক্ষীর কোপে তাদের অনেক ক্ষয় ক্ষতিও হতে দেখা যায়।

সাধারণ মানুষ একে লক্ষীর কোপ বলে থাকেন। কিন্তু বেশীর ভাগ লোকই জানেন না যে লক্ষীর কোপ কিভাবে পড়ে একজন মানুষের উপর। তার ফলে তারা সেই প্রকোপ থেকে বাঁচার জন্য বিভিন্ন হোম যজ্ঞ করেন। কিন্তু এভাবে তারা বাঁচতে পারেন না কোন মতেই। তাই তাদের পুরোপুরি জানতে হবে কি কি কাজ একেবারেই না করা উচিত লক্ষ্মী পুজোর সময়। আসুন আপনাদেরও জানিয়ে রাখা যাক সেই কাজগুলোর কথা যে গুলো একদমই করা উচিত নয়।

তুলসী পাতার ব্যবহার – লক্ষ্মী পুজোয় কখনোই তুলসী পাতার ব্যবহার করবেন না। কারণ তুলসী বিষ্ণুর খুব প্রিয় এবং শিলায় আটকে থাকার সময় বিষ্ণুর সাথে বিয়ে হয় এর ফলে তুলসী সতীন হয় লক্ষ্মীর।

বাতির রঙ – লক্ষ্মী পুজোর সময় যে বাতিই জ্বালান না কেন তা যেন লাল রঙের হয়। অন্যান্য রঙের বাতি জ্বালানো কখনই উচিৎ নয়। বদলে আপনি প্রদিত জ্বালাতে পারেন।

ফুলের রঙ – বিবাহিত বলে মা লক্ষ্মীকে কখনোই সাদা রঙের ফুল অর্পণ করবেন না। সবসময় লাল বা গোলাপী রঙের ফুল দিয়ে তার পুজো করার চেষ্টা করুন।

প্রসাদ রাখার দিক – মা লক্ষীর উপাসনা করার সময় সবসময় দক্ষিণ দিকে প্রসাদ রাখবেন এবং প্রসাদ খাওয়ার সময় কোনভাবেই সেটা যেন ফেলা না যায় কোন অংশেই। এইভাবে মা লক্ষ্মীর পূজা করুন। আপনার সংসারের সব অশান্তি দূর হয়ে যাবে। কর্মক্ষেত্রে উন্নতি ঘটবে এবং আপনার ধনলাভ হবে অবশ্যই।