সামান্য এই ঘরোয়া উপাদান কাটিয়ে দেবে আপনার আর্থিক সমস্যা…

0
2254

প্রত্যেকটি মানুষই চায় তার জীবনে যেন কোনো বাধা বিপত্তি না আসে। জীবনের প্রতিটা মুহূর্ত যেন খুব ভালো ভাবে কাটে। সবাই চায় আর্থিক দিক থেকে তার যেন কোনো কষ্ট না থাকে। অর্থের জন্য যেন কোনো বাধা সৃষ্টি না হয় তার জীবনে। তাই জীবনে উন্নতি করার জন্য অনেকে অনেক পরিশ্রম করে থাকেন।

আর্থিক উন্নতির জন্য অনেকেই বাস্তুশাস্ত্র মেনে চলেন। বাস্তু মেনে অনেকে বাড়ি তৈরি করেন, অনেক নিয়ম পালন করেন। বাস্তু মেনে পুজো আর্চা করে থাকেন। বৈদিক শাস্ত্র মেনে অনেক নিয়ম পালন করেন। তারই মধ্যে কিছু এমন নিয়ম আছে যা আপনি সহজেই পালন করতে পারেন।

ঘরের উত্তর দিকে সবুজ মানি প্ল্যান্ট রাখতে পারেন, এতে আর্থিক উন্নতি হয়। সবসময় চেষ্টা করবেন বাড়ির প্রবেশপথ যেন উত্তর দিকে হয়, এতে আর্থিক ভাবে উন্নতি হয়। বহুদিন ধরে অনেকেই আর্থিক ভাবে জেরবার হয়ে থাকেন। চেষ্টা করেও অর্থ সঞ্চয় করতে পারেন না।

এই সমস্যা যদি দীর্ঘদিন ধরে চলতে থাকে তার কারন বাস্তুদোষ। এক্ষেত্রে বাস্তুবিশারদরা বাস্তুদোষ কাটানোর পরামর্শ দিয়ে থাকেন। বাস্তুমতে ঘরোয়া পদ্ধতিতে দোষ কাটিয়ে আর্থিক সমস্যা কাটিয়ে ওঠা সম্ভব। জেনে নিন বাস্তুর এই সহজ নিয়মগুলো।

আর্থিক সমস্যা কাটিয়ে ওঠার জন্য প্রয়োজন লবন ও লবঙ্গ। একটা কাচের বাটিতে কিছুটা লবন নিয়ে তার মধ্যে ৫ থেকে ৬ টা লবঙ্গ রেখে দিন ঘরের একটি সুরক্ষিত কোনে যেখানে কারও স্পর্শ লাগবে না। এই নিয়ম পালন করলে বাস্তুদোষ কেটে যাবে ও আর্থিক উন্নতি হবে।

পাশাপাশি এটাও মনে রাখতে হবে যে প্রতিমাসে একইদিনে ওই লবন ও লবঙ্গ পাল্টাতে হবে। যখন পাল্টাবেন তখন পাত্রটি ভালো করে ধুয়ে পরিষ্কার করে তার মধ্যে নতুন করে লবন ও লবঙ্গ রাখতে হবে। বাস্তুমতে টানা ৩ মাস এই পদ্ধতি অবলম্বন করলে আর্থিক উন্নতি হতে শুরু করবে। আর্থিক ভাবে সব বাধা বিপত্তি কেটে যাবে।

বাস্তুমতে ঘরের কিছু অবস্থানের উপর নির্ভর করে আর্থিক উন্নতি। যেমন মানি প্ল্যান্ট লাগানো, বাড়ির প্রবেশ পথ উত্তর দিকে করা। রান্নাঘরের অবস্থান যেন দক্ষিন-পূর্ব দিকে হয় এবং চেষ্টা করুন উত্তর দিকে পড়ার টেবিল বসার সোফা রাখতে। এতে সংসারের উন্নতি হয়, আর্থিক ভাবেও উন্নতি হয়। বাড়ির ডাস্টবিন, মিক্সি মেশিন উত্তর দিকে রাখা উচিত না। এই সব নিয়ম মেনে চললে আর্থিক ভাবে উন্নতি ঘটবে।