বাড়ির এই জায়গায় টানা ১ মাস একটি ময়ূর পালক রাখুন, ভাগ্য কিভাবে বদলে যাবে নিজেই বুঝতে পারবেন…

0
9368

ময়ূর পালকের গুনাগুন গুলি যদি আপনি জানেন তাহলে এটি আপনি বাড়িতে না রেখে থাকতে পারবেন না। বহু পৌরাণিক কাহিনীতে ময়ূর পালকের বিশেষ গুরুত্ব লক্ষ্য করা যায়। ময়ূর পালক ভগবান শ্রীকৃষ্ণের মাথাতে শোভা পায়। দেবরাজ ইন্দ্র ময়ূর পালকের সিংহাসনের উপর বসেন।

পুরাকালে মুনি ঋষিরা ময়ূর পালক দিয়েই বিভিন্ন গ্রন্থ রচনা করেছেন। রামায়ন ও মহাভারত মহাকাব্য এই ময়ূর পালক দিয়েই রচনা করা হয়েছিল। এই কারনে বাস্তুশাস্ত্রে ও জ্যোতিষ শাস্ত্রে ময়ূর পালককে একটি বিশেষ স্থান দেওয়া হয়ে থাকে। আসুন আজ এর আশ্চর্য ও অদ্ভুত গুনগুলি সম্বন্ধে জানি।

১. বাড়িতে যদি ময়ূর পালখ থাকে তাহলে নেতিবাচক শক্তি বাড়ি থেকে বিদায় নেবে। বাড়িতে সবসময় ইতিবাচক শক্তি বিরাজ করবে। ২. ডায়েরি বা পকেটে ময়ূর পালখ রাখলে রাহু দোষ কেটে যাবে। ৩. আপনি যদি আপনার পরিবারকে একত্রিত রাখতে চান তাহলে বাড়িয়ে রাখুন দুটি ময়ূর পালখ। এর প্রভাবে বাড়িতে কেউ আলাদা হবেন না।

৪. বাচ্চা যদি পড়াশোনায় অমনোযোগী হয় বা পড়াশোনায় মন একদম না থাকে তাহলে তার পড়ার ব্যাগে বা বইয়ের মধ্যে রেখে দিন একটি ময়ূর পালখ। কাজ হবেই হবে। ৫. এটা মানা হয়, যে ব্যাক্তি নিজের কাছে সবসময় ময়ূর পালখ রাখেন তার কখনো কোন অমঙ্গল ঘটে না। ৬. জীবনে হঠাৎ করে যদি কষ্ট বা বিপত্তি আসে তাহলে ঘর বা বেডরুমের ঈশান কোনে ময়ূর পালখ রাখুন। সবকিছু ঠিক হয়ে যাবে।

৭. স্বামী স্ত্রীর মধ্যে প্রায়ই যদি ঝগড়া হয় তাহলে দুটি ময়ূর পালখ নিয়ে লুকিয়ে নিজের বিয়ের অ্যালবামে রেখে দিন। প্রেম বাড়বে ও ঝগড়াঝাঁটি বন্ধ হয়ে যাবে। ৮. ময়ূর পালখ যদি আপনার কাছে থাকে তাহলে জীবনে কখনো অসফল হবেন না। সাফল্যের একের পর এক সিঁড়ি আপনি অতিক্রম করবেন। ৯. ময়ূরের প্রিয় আহার সাপ। তাই সাপ ময়ূরকে ভয় পায়। তাই ময়ূর পালখ যেখানে থাকে সাপ সেখানে প্রবেশ করে না। সাপ থেকে মুক্তি পেতে ময়ূর পালখ রাখুন।

১০. এটা মানা হয় যে ময়ূর পালখ মাঝে মাঝে মাথায় ঠেকালে প্রভূত লাভ হয়ে থাকে। ১১. আপনার বাড়ি বা মূল দরজা যদি বাস্তু শাস্ত্র অনুযায়ী না হয়ে থাকে তাহলে বাস্তুদোষ দূর করার জন্য সদর দরজার মাথায় তিনটি ময়ূর পালখ লাগান। আর তার নীচে ভগবান গণেশের মূর্তি বা ছবি লাগান। বাস্তুদোষ কেটে যাবে। ১২. প্রায়ই রাতে কি আপনি ভয়ানক স্বপ্ন দেখেন ? তাহলে বালিশের তলায় ময়ূর পালখ রেখে ঘুমান। স্বপ্ন দেখা বন্ধ হয়ে যাবে।

১৩. ময়ূর পালখ বাড়িতে আনার সময় অবশ্যই একবার ভগবান শ্রীকৃষ্ণের নাম নেবেন। ১৪. ঘরের দক্ষিন-পূর্ব কোনে ময়ূর পালখ রাখলে প্রভূত উন্নতি ঘটবে। বাড়িতে অর্থের অভাব কোনদিন হবে না। ১৫. ময়ূর পালখ কখনো মাটিতে ফেলবেন না। এতে আপনার বাড়ির উন্নতি বাধাপ্রাপ্ত হবে। আর এটা মাটিতে ফেলা মানেই ভগবান শ্রীকৃষ্ণের অপমান করা।

১৬. ময়ূর পালখ কেনার সময় খেয়াল রাখবেন যে সেটা যেন ভাঙা বা মচকানো না থাকে। সঠিকভাবে দেখে তবেই কিনুন। নাহলে সেটা আপনার জন্য অশুভ প্রতিপন্ন হবে। ১৭. যারা মালা জপ করেন তারা জপের মালাকে ময়ূর পালখের সাথে রাখুন। অবশ্যই সিদ্ধি লাভ ঘটবে। ১৮. কোন বিশেষ শুভ দিনে ময়ূর পালখ কিনুন। তাহলে সেটা আপনার জীবনে সবচেয়ে সুফল প্রদান করবে।

১৯. ময়ূর পালখ বাড়িতে থাকলে সমস্ত গ্রহদোষ দূর হয়ে যাবে। ২০. ময়ূর পালখ রাতের বেলা উঠানে যদি ঝুলিয়ে রাখা হয় তাহলে নেগেটিভ শক্তি বাড়িতে প্রবেশ করতে পারে না। উপরন্ত বাড়ির সমস্ত নেগেটিভ শক্তি বিনষ্ট হয়ে যায়। ২১. কেউ যদি আপনাকে ময়ূর পালখ দান করে তাহলে আপনার জীবনের সকল সাফলতার রাস্তা খুলে যাবে।