শাস্ত্র অনুযায়ী যে ব্যক্তির মধ্যে এই ৬ টি বদ অভ্যাস আছে তাদের ঘরে মা লক্ষ্মী থাকেন না…

0
15720

সকল মানুষ চায় সুখি জীবন। আর সুখি জীবনের একমাত্র পাথেয় হল অর্থ। যদি আর্থিক দিক স্বচ্ছল হয় তাহলে জীবনে অনেক সুখি হওয়া যায়। এমন মানুষ খুব কম আছে যার অর্থের প্রতি কোন মোহ মায়া নেই। এই বিশ্বে বেশিরভাগ মানুষেরই অর্থের প্রতি লোভ রয়েছে। সকলেই চায় অর্থ উপার্জন করে আরামে জীবন যাপন করতে।

অর্থ বা ধন সম্পদের দেবী হলেন মা লক্ষ্মী। তিনি তুষ্ট হলে তবেই আমাদের স্বচ্ছলতা আসে। অনেকে আছেন যারা মা লক্ষ্মীর নিয়ম করে পুজো করেন, কিন্তু তবুও কোন না কোন ক্ষতি হতেই থাকে।

মা লক্ষ্মীকে প্রসন্ন করার জন্য শুধু তার পুজো করা যথেষ্ট নয়, মানতে হয় কিছু নিয়মও। অনেক মানুষের কিছু কিছু খারাপ অভ্যাস আছে যার ফলে মা লক্ষ্মী অসন্তুষ্ট হন। সেই অভ্যাসগুলি সম্পর্কে জানুন আর সাবধান হয়ে সেই অভ্যাস বদলে ফেলুন।

১। অত্যাধিক ঘুম ঃ- বর্তমান যুগে প্রায় অনেকই সূর্যোদয়ের পড়ে ঘুম থেকে ওঠে। এরকম করা কখনই উচিৎ নয়। তেমন হলে মা লক্ষ্মী রুষ্ট হন। আবার সন্ধ্যা বেলা যখন সূর্য অস্ত যায় তখন কেউ ঘুমোলেও মা লক্ষ্মী রুষ্ট হন। নিয়ম হল সূর্য উদয় অস্তের সময় না ঘুমানো। যদি এই অভ্যাস থাকে তবে তা শীঘ্রই বদলে ফেলা উচিৎ।

২। প্রদীপ ঃ- যে বাড়িতে সকাল সন্ধ্যা প্রদীপ জ্বালানো হয়না সেই বাড়িতে মা লক্ষ্মী থাকেন না। যে বাড়িতে সকাল সন্ধ্যা পূজা হয়, ধূপ প্রদীপ দেখানো হয়, সেই বাড়িতে মা লক্ষ্মী অচলা থাকেন।

৩। ক্রোধ করা এবং অপশব্দ বলা ঃ- যে ব্যাক্তি কথায় কথায় রাগ করে অন্যকে বাজে কথা বলে, তার উপরেও মা লক্ষ্মী সর্বদা রাগ করে থাকেন। সে এবং তার পরিবার সর্বদা অর্থকষ্টে ভোগে।

৪। সন্ন্যাসী নির্ধন ও শাস্ত্রের অনাদর করা ঃ- যে ব্যাক্তি সন্ন্যাসী, নির্ধন বা গরীব ব্যাক্তি ও শাস্ত্রের অপমান ও অনাদর করে, মা লক্ষ্মী তার উপর কখনই কৃপাদৃষ্টি দেননা।

৫। অপরিষ্কার থাকা ঃ- ঘর বাড়ি সবসময় পরিষ্কার পরিচ্ছন্ন রাখা দরকার। না হলে সেই বাড়িতে মা লক্ষ্মী থাকেন না। ঘর বাড়ি সাথে নিজেও পরিষ্কার পরিচ্ছন্ন থাকা দরকার।

৬। সন্ধ্যায় ভোগবিলাস না করা ঃ- সন্ধ্যা বেলায় অনেকেই ভোগ বিলাসে মজেন, এরকম ব্যাক্তিদের স্থান হয় নরকে। মা লক্ষ্মী এদের বাড়ি ছেড়ে চলে যান।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here