মানুষ চাঁদে গিয়ে কি কি জিনিস রেখে এসেছে দেখুন…

0
2808

মানুষের চাঁদে যাওয়া বর্তমানে কোন অবাক করার মতো ব্যাপার নয়। ১৯৬৯ সালে চাঁদের মাটিতে পা রেখে তা প্রমান করেছিলেন যুক্তরাষ্ট্রের বিজ্ঞানী নীল আর্মস্ট্রং। তার পরে অনেকেই চাঁদে গেছেন। তার মধ্যে আবার অনেকে চাঁদের মাটিতে নিজেদের পা রাখার প্রমাণ হিসাবে কিছু না কিছু রেখে এসেছেন। আজ সেগুলি নিয়েই আলচনা করবো আমরা।

পায়ের ছাপ ঃ- কিছু দিন আগে চীন থেকে চেঞ্জ-৪ চাঁদের মাটিতে ঘুরে এসেছে বলে জানা যায়। চেঞ্জ-৪ এ থাকা সব বিজ্ঞানীরা নিজেদের পায়ের ছাপ রেখে এসেছেন চাঁদের মাটিতে। আবার সেই ছবিও প্রকাশ করেছেন সকলের সামনে।

যুক্তরাষ্ট্রের পতাকা ঃ- যখন নীল আর্মস্ট্রং চাঁদে গিয়েছিলেন তখন তিনি চাঁদের মাটিতে যুক্তরাষ্ট্রের পতাকা উত্তোলন করেন। ১৯৬৯ সাল থেকে চাঁদে যুক্তরাষ্ট্রের পতাকা উড়ছে।

গল্ফ বল ঃ- এর পরে যখন অ্যাপোলো ১৪ চাঁদে যায় তখন অ্যালেন শেফার্ড ও ইগার মিখাইল নামে দুজন ছিলেন অভিযানে। তারা নিজেদের সঙ্গে একটি গল্ফ বল নিয়ে গিয়েছিলেন। তারা সেই বলটি সেখানে রেখে আসেন।

১৪ জন বিজ্ঞানীর নাম লেখা প্ল্যাকার্ড ঃ- ১৯৭১ সালে আবার চাঁদে যায় যুক্তরাষ্ট্রের চন্দ্রযান। সেটির নাম ছিল অ্যাপোলো ১৫। সেই চন্দ্রযানে যারা যারা ছিলেন তারা ফেরার সময় যুক্তরাষ্ট্রের এবং রাশিয়ার ১৪ জন বিজ্ঞানীর নাম লেখা একটি প্ল্যাকার্ড চাদের মাটিতে রেখে আসেন। ঐ ১৪ জন বিজ্ঞানী কখনও না কখনও চন্দ্রাভিযান করতে গিয়েই মারা গিয়েছিলেন।

ছবি ঃ- ১৯৭২ সালে চাঁদে গিয়েছিলেন যুক্তরাষ্ট্রের বিজ্ঞানী কার্লেস মস ডিউক। তিনি পরবর্তী চন্দ্রযান আপোলো ১৫ এ চাঁদে গিয়েছিলেন। তিনি ফিরে আসার সময় তার পরিবারের একটি ছবি চাঁদের মাটিতে রেখে আসেন।

শক্তিশালী ক্যামেরা ঃ- যুক্তরাষ্ট্রের বিজ্ঞানীরা চাঁদের মাটিতে একবার একটি শক্তিশালী ক্যামেরাও রেখে এসেছিলেন। যেটি ১২ হ্যাসেলবেল্টের ক্যামেরা ছিল। ২০১৪ সালে আবার গিয়ে ঐ ক্যামেরাটি পৃথিবীতে ফিরিয়ে আনা হয়। তাতে অনেক তথ্য সংগ্রহ করে রাখা ছিল। পড়ে সেটি নিলাম করা হয়। নিলামে সেটির দাম উঠেছিল ৮ লক্ষ ৫৩ হাজার ডলার। ভারতীয় মুদ্রায় ৭ কোটি টাকা।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here