এক দুঃখজনক কারনে মেঋত্যু হয়েছে গোবিন্দার মেয়ের, তার জন্য গোবিন্দা যা করলেন…

0
1431

বলিউদের সুপারস্তার হিসাবে আমরা সকলেই গোবিন্দাকে চিনি। তিনি এমন একজন অভিনেতা যিনি বেশি হাসিয়েছেন তার দর্শকদের। তার জীবন এত দুঃখের তা কারোর জানা নাই। তিনি বলিউডের জন্য তার জীবনের অনেকটা সময় দিয়েছেন। তার জন্ম এবং কর্ম সব মুম্বাইয়ে। তার আসল নাম গোবিন্দা নয়। কাজের ক্ষেত্রে তাকে নিজের নাম বদলাতে হয়েছে। এরকম অনেক অভিনেতাকেই নিজের নাম বদলাতে হয়।

তিনি কিছু সিনেমায় দর্শকদের যেমন হাসিয়েছেন তেমন অনেক সিনেমায় দর্শকদের কাঁদিয়েছেন। তার অভিনয় যে অসাধারণ তা নিয়ে কোন সন্দেহ নেই। গোবিন্দার বাইরের কর্মজিবন সম্পর্কে তো অনেকেই জানে কিন্তু তার ব্যাক্তিগত জীবন সম্বন্ধে কারোর কিছু জানা নেই।

তিনি নিজের পরিবারকে খুব ভালোবাসেন। তার পরিবারের জন্য তিনি অনেক সংগ্রাম করেছেন। সবাই জানে তার একটি মেয়ে এবং একটি ছেলে আছে। তার মেয়ের নাম নর্মদা, আর ছেলের নাম যশবর্ধন। কিন্তু তার শুধু দুটি সন্তান নয়।

তার আর একটি মেয়েও ছিল। যার মৃত্যু হয়েছিল মাত্র ৪মাস বয়সে। এই ঘটনা তার কাছে খুব দুঃখজনক। সেই দুঃখ ষে জীবনে কোনোদিন ভুলতে পারেনি, আর কখনো পারবেওনা। তিনি বলেছেন যে তিনি তার পরিবারের অনেকের মৃত্যুর সাক্ষী। এই কথা বলতে গিয়েই তিনি বলেন যে তার মেয়ের মৃত্যু তার কাছে বেশি দুঃখজনক।

গোবিন্দা একজন ভালো ডান্সার, কমেডিয়ান, তার সঙ্গে তিনি রাজনিতিবিদ।  তিনি ৯০ এর দশক থেকে আছেন বলিউডে। সেই সূত্রেই তার সঙ্গে পরিচয় হয় তার স্ত্রী সুনিতার সঙ্গে। সেখানে এক সহকারী পরিচালকের আত্মীয় হলেন সুনিতা।

সেখান থেকেই তাদের প্রেম ও তারপর বিয়ে। বিয়ের পর তাদের প্রথম সন্তান হয় একটি মেয়ে। কিন্তু সেই বেবি ছিল প্রিম্যাচিয়র। তাই শে বেশিদিন বাঁচেনি। তিনি তার পরিবার সম্পর্কে বেশি কিছু বলতে চান না। তার কারন হল এটাই। তিনি তার দুঃখের কথা মনে করতে চান না।

তাই তিনি তার বাকি সন্তানদের ক্ষেত্রে খুব সতর্ক থাকেন। তাদের কোনরকম অসুবিধা হতে তিনি দেন না। তিনি তার বাবা মা, ভাই বোন, শালার মৃত্যুর সাক্ষী। কিন্তু তাদের সবার থেকেও নিজের সন্তানের মৃত্যুতে বেশি কষ্ট পেয়েছেন। তিনি তার পরিবারের একমাত্র উপার্জন করা ব্যাক্তি। তাই তিনি সব সময় মানসিক ও আর্থিক চাপে থাকেন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here