অতীন্দ্রর হাত ধরে উঠে এল আরও একটি প্রতিভা, ভাইরাল হল গান…

0
2392

অতীন্দ্র চক্রবর্তী একটা নামই নয়, তিনি যেন ভগবানের দুত। পেশায় ইঞ্জিনিয়ার, নিবাস রানাঘাট। তিনি এখন শুধু রানাঘাট বাসির কাছে নয় সমগ্র দেশের কাছে একজন আইকন। কদিন আগেও অতিন্দ্রকে কেউ চিনত না, কিন্ত এখন তাকে একডাকে সবাই চেনে। ঘটনার সুত্রপাত রানু মণ্ডল, না কোনো সেলিব্রেটি নয়, সাধারন মানুষ। রানাঘাট স্টেশনে গান গেয়ে ভিক্ষা করে বেড়াতেন রানু।

অতীন্দ্র চক্রবর্তী তার গান রেকর্ড করে তার ফেসবুক প্রোফাইলে আপলোড করেন। তারপরই সেই গান ভাইরাল হয়ে যায়। সেই গান নিয়ে নেট দুনিয়ায় চর্চাও হয় প্রচুর। রানাঘাটের ভবঘুরে গায়িকা থেকে রানু মণ্ডল পাড়ি দেন বলিউডে। হিমেশ রেসমিয়ার সাথে গানও রেকর্ডও করেন তিনি।

ভবঘুরে থেকে প্লে-ব্যাক সিঙ্গার হয়ে ওঠে রানু মণ্ডল। সেই সময় অতীন্দ্রকে তার পাশে দেখা যায়। আর এই সাফল্যের জন্য নেট দুনিয়ার নেটিজেনরা তাকে বাহবা দিয়েছে। অতীন্দ্রর সাথে হিমেশের কথাও হয়। হিমেশ তাকে দায়িত্ব দেয় নতুন প্রতিভা খুজে আনার জন্য।

এবার অতীন্দ্রর হাত ধরে উঠে এল এক নতুন প্রতিভা। সম্প্রতি এক যুবকের গান নিজের ফেসবুক প্রফাইলে আপলোড করেন অনিন্দ্র। পোস্ট করার সাথে সাথে প্রায় ২ লাখ লোক দেখে সেই ভিডিও। অনেকে শেয়ারও করেন। প্রত্যেকে এই যুবকের গানের প্রশংসায় পঞ্চমুখ। গানের প্রশংসায় অনেকে কমেন্টও করেছেন।

জানা গেছে এই যুবকের নাম সুরজিত। রানু মণ্ডলের পর অতীন্দ্রর দিত্বীয় প্রতিভা এই সুরজিত। যদিও রানুদির মত একে নিয়ে সোশ্যাল মিডিয়ায় এত শোরগোল পরেনি। তবুও এর গান নেট দুনিয়ায় ভাইরাল হয়েছে। নেটিজেনদের কাছে প্রশংসাও পেয়েছে সুরজিত।

সাথে একথা অনস্বীকার্য যে হিমেশ অতীন্দ্রকে যে প্রতিভা খোজার দায়িত্ব দিয়েছিলেন, সেখানে অতিন্দ্র কোনো কসুর করেননি। রানু মণ্ডল ভাইরাল হওয়ার পর অতীন্দ্র নিজের একটা ফেসবুক পেজ খোলে। কারন শুধু ভালোবাসার কারনে নিজের ফেসবুকে আপলোড করেছিলেন রানু মণ্ডলের গান।

সেই গান ভাইরাল হয়ে নেটদুনিয়ায় এত শোরগোল ফেলে দেবে সেটা অতীন্দ্র নিজেও বুজতে পারেনি। এবার অতীন্দ্রর লক্ষ হল সব জায়গা থেকে প্রতিভা খুজে এনে সেই প্রতিভা প্রতিষ্ঠিত করা। তার মাধ্যম হল নিজের ফেসবুক পেজ। কারন দুই দুজনকে সাফল্য এনে দিয়েছেন তিনি, তাই তার পেজ অনেকেই ফলো করেন আর এইভাবে তিনি এগিয়ে যাবেন নিজের লক্ষে।